আইনি জটিলতায় গৌরীপুরে মডেল মসজিদ ও ইসলামিক সাংস্কৃতিক কেন্দ্র নির্মাণে অনিশ্চয়তা

স্টাফ রিপোর্টার
প্রকাশিত : বুধবার ২২ মে, ২০১৯ /

আইনি জটিলতার কারণে ময়মনসিংহ জেলার গৌরীপুরে মডেল মসজিদ ও ইসলামিক সাংস্কৃতিক কেন্দ্র নির্মাণে অনিশ্চয়তা দেখা দিয়েছে।

এনিয়ে আদালতে রীট হওয়ায় বিকল্প জায়গায় মসজিদ নির্মাণের পুণ:প্রস্তাব প্রেরণের জন্য জেলা প্রশাসককে অনুরোধ জানিয়েছেন ইসলামিক ফাউন্ডেশনের প্রকল্প পরিচালক।

এদিকে গৌরীপুর সরকারি কলেজ মসজিদের জায়গায় মডেল মসজিদ ও ইসলামিক সাংস্কৃতিক কেন্দ্র নির্মাণের জন্য ইসলামিক ফাউন্ডেশনের প্রকল্প পরিচালকের কাছে আবেদন করেছে কলেজ কর্তৃপক্ষ। ইতোমধ্যে প্রকল্প পরিচালক কলেজের প্রস্তাবিত জায়গা পরিদর্শন করেছেন।

ইসলামিক ফাউন্ডেশনের প্রাপ্ত তথ্যে জানা যায়, বিগত মহাজোট সরকারের আমলে দেশের প্রতিটি জেলা ও উপজেলায় একটি করে ৫৬০টি মডেল মসজিদ ও ইসলামিক সাংস্কৃতিক কেন্দ্র নির্মাণের লক্ষ্যে ধর্মমন্ত্রণালয় একটি প্রকল্প গ্রহণ করে। এজন্য ময়মনসিংহের গৌরীপুর উপজেলার পৌর এলাকার উত্তরবাজারে বায়তুল আমান জামে মসজিদের ০.৩১০৬ একর জায়গাসহ আরএস ১০১৭ নং খতিয়ানের এসএ ১০৪৯ নং দাগ যার আরএস-১৪৫১ নং দাগে ০.১৫৬২ একর ভূমি এবং আরএস ১২০২ নং খতিয়ানে এসএ ১০৫৭ ও ১০৫৮ নং দাগ যার আরএস ১৪৫২নং দাগে ০.০৩৩৮ একর ভূমিসহ ০.১৯০০ একর ভূমি অধিগ্রহণযোগ্য জায়গায় মডেল মসজিদ ও ইসলামিক সাংস্কৃতিক কেন্দ্র নির্মাণের জন্য প্রশাসনিক অনুমোদন দেয়া হয়।

পরবর্তীতে প্রস্তাবিত ভূমি মধ্যে সাড়ে ৫ শতাংশ দলিল মূলে ও ১০ শতাংশ বাইনামূলে মালিক মো. আক্কাস আলী ভূইয়া ও তার সহোদর মো. মাহমুদ হাসান ভূইয়া ধর্ম মন্ত্রণালয়ের সচিব বরাবর পাকা দোকান ও বসতবাড়িসহ তাদের ভূমি ভূমি অধিগ্রহণ না করার আবেদন করেন।

এ ব্যাপারে মহামান্য হাইকোর্টে রীট পিটিশন দাখিল করলে জেলা প্রশাসককে আলোচনার মাধ্যমে নিষ্পত্তি করার নির্দেশনা দেয় হাইকোর্ট। বিষয়টি এখনো নিষ্পত্তি না হওয়ায় মডেল মসজিদ নির্মাণে অনিশ্চয়তা দেখা দিয়েছে।

এমতাবস্থায় গত ৭ এপ্রিল প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে মহাপরিচালক-৩ এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এক সভায় চট্টগ্রাম, বরিশাল ও ময়মনসিংহ জোনের নির্বাচিত তিনটি জায়গা নিয়ে আদালতে রীট হওয়ায় জরুরি ভিত্তিতে রীট নিষ্পত্তির অপেক্ষায় না থেকে বিকল্প জায়গা চিহ্নিত করে দ্রুত সমাধানের ব্যবস্থা গ্রহণের সিদ্ধান্ত হয়। সে মোতাবেক ময়মনসিংহের গৌরীপুরে মডেল মসজিদ ও ইসলামিক সাংস্কৃতিক কেন্দ্র নির্মাণের প্রস্তাবিত জায়গার পরিবর্তে জরুরি ভিত্তিতে দানকৃত/খাস/সরকারি জায়গার পুন:প্রস্তাব প্রেরণের জন্য জেলা প্রশাসককে অনুরোধ জানায় প্রকল্প পরিচালক।

এদিকে ধর্ম সচিব মো. আনিসুর রহমান প্রকল্প পরিচালককে গৌরীপুর সরকারি কলেজ মসজিদের জায়গায় মডেল মসজিদ ও ইসলামিক সাংস্কৃতিক কেন্দ্র নির্মাণের জন্য জায়গা প্রদানের প্রস্তাবনা নিয়ে একটি প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ দিয়েছেন। গত ১৫ মে প্রকল্প পরিচালক মো. শফিকুল ইসলাম সরেজমিন পরিদর্শন করেন।

জেলা প্রশাসক ড. সুভাষ চন্দ্র বিশ্বাস জানান, জমির মালিক আদালতে রীট করায় মডেল মসজিদ নির্মাণের বিষয়টি এখনো চূড়ান্ত হয়নি। রীট নিষ্পত্তি না হওয়ায় পর্যন্ত কিছু করা যাচ্ছে না। গৌরীপুর সরকারি কলেজের জায়গায় মডেল মসজিদ ও ইসলামিক সাংস্কৃতিক কেন্দ্র নির্মাণের জন্য আবেদন করা হয়েছে। ইসলামিক ফাউন্ডেশন কর্তৃপক্ষ সরেজমিন পরিদর্শন করে উপযুক্তস্থান নির্বাচন করে সুপারিশ করলে পুণ:প্রস্তাব প্রেরণ করা হবে বলে জানান তিনি।

প্রকল্প পরিচালক মো. শফিকুল ইসলাম জানান, হাইকোর্টে রীট করার কারণে গৌরীপুরে মডেল মসজিদ নির্মাণ প্রকল্পটি ঝুলে পড়েছে। দু’টি জায়গায় মসজিদ নির্মাণের আবেদন করা হয়েছে। কোথায় মসজিদ নির্মাণ করা হবে এটা এখনো চূড়ান্ত হয়নি। জেলা প্রশাসককে উপযুক্ত জায়গা দেখে পুণ:প্রস্তাব প্রেরণের জন্য বলা হয়েছে বলেও জানান তিনি।

আপনার মতামত লিখুন :