উন্মুক্ত হচ্ছে আরব আমিরাতের শ্রমবাজার

প্রকাশিত: ৯:০৮ অপরাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ৫, ২০২০

উন্মুক্ত হচ্ছে আরব আমিরাতের শ্রমবাজার। দীর্ঘ আট বছরেরও বেশি সময় ধরে বন্ধ থাকার পর সংযুক্ত আরব আমিরাতের শ্রমবাজার বাংলাদেশিদের জন্য উন্মুক্ত হতে যাচ্ছে। বুধবার (৫ ফেব্রুয়ারি) সংবাদ মাধ্যমে এসব তথ্য জানিয়েছেন প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী ইমরান আহমেদ।

এ সময় কাতারের শ্রম বাজারও বাংলাদেশের জন্য উন্মুক্ত হতে যাচ্ছে বলেও জানান মন্ত্রী। বৃহস্পতিবার (৬ ফেব্রুয়ারি) এ বিষয়ে সংবাদ সম্মেলন করে বিস্তারিত জানানো হবে।

গেল বছরের ১৭ নভেম্বর দুবাই সফররত বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে বৈঠককালে আবু ধাবির ক্রাউন প্রিন্স ও সংযুক্ত আরব আমিরাতের ডেপুটি সুপ্রিম কমান্ডার শেখ মোহাম্মদ বিন জায়েদ আল নাহিয়ান শ্রমবাজার খোলার বিষয়ে ইঙ্গিত দেন।

বৈঠকে জনশক্তি রপ্তানির বিষয়টি উঠে এলে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দীর্ঘদিন সংযুক্ত আরব আমিরাতের শ্রমবাজারে বাংলাদেশের প্রবেশ বন্ধ থাকার কথা উল্লেখ করেন।

এর পরিপ্রেক্ষিতে আবু ধাবির ক্রাউন প্রিন্স শেখ মোহাম্মদ বিন জায়েদ আল নাহিয়ান সংযুক্ত আরব আমিরাতের শ্রমবাজার বাংলাদেশি শ্রমিকদের জন্য উন্মুক্ত করার ইঙ্গিত দিয়ে বলেন, সংযুক্ত আরব আমিরাত পুনরায় সফরের আগে আপনাকে (প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা) এ বিষয়ে আর বলতে হবে না।

সংযুক্ত আরব আমিরাতের শ্রমবাজারে বাংলাদেশ থেকে শ্রমিক রপ্তানি গত পাঁচ বছর ধরে বন্ধ রয়েছে। বৈঠকে বাংলাদেশ থেকে সংযুক্ত আরব আমিরাতে চাল রপ্তানির বিষয়ে আলোচনা হয়।

বিভিন্ন ধরনের চাল উৎপাদনের কথা উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, বাংলাদেশ চাল উৎপাদনে উদ্বৃত্ত দেশ। আমরা বিভিন্ন দেশে চাল রপ্তানি করি। এ প্রসঙ্গে শেখ মোহাম্মদ বিন জায়েদ আল নাহিয়ান বলেন, বিভিন্ন ধরনের চাল দেখতে সংযুক্ত আরব আমিরাত থেকে পাঠানো হবে একটি প্রতিনিধিদল। এছাড়া শেখ হাসিনা বলেন, সব ধরণের বিনিয়োগকে আমরা স্বাগত জানাবো।