গরুকে ধর্ষণের ঘটনায় ধর্ষক কারাগারে

নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত : শনিবার ১৭ জুলাই, ২০২১ /

পাবনার সাঁথিয়ায় হাফিজুর (৩৫) নামের এক ব্যাক্তির বিরুদ্ধে গরুকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। ধর্ষণের পর গরুটি মারা গেছে। গতকাল বুধবার রাতে উপজেলার হাপানিয়া রামচন্দ্রপুর গ্রামে ঘটনাটি ঘটেছে। এ ঘটনায় ওই গরুর খামারের মালিক রেজাউল করিম মাস্টার বাদী হয়ে সাথিয়া থানায় মামলা দায়ের করেছেন। বৃহস্পতিবার দুপুরে পশু ধর্ষক হাফিজুরকে গ্রেফতার করে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠিয়েছে পুলিশ। অভিযুক্ত হাফিজুর, গরু ধর্ষণের কথা জনসম্মুখে স্বীকার করেছেন।
জানা গেছে, বুধবার রাত ১০টা ২০ মিনিটের দিকে হাফিজুর উপজেলার হাপানিয়া রামচন্দ্রপুর গ্রামের রেজাউল করিমের গরুর খামারে প্রবেশ করে। সকালে খামারের মালিক গোয়াল ঘরে এসে দেখে তার একটা গাভী মরে পড়ে আছে। এতে তার সন্দেহ হয় কেউ এসেছিল ঘরে। পরে তাৎক্ষণিক গোয়াল ঘরের সিসিটিভির ফুটেজ দেখেন তিনি। ফুটেজে তিনি দেখতে পান একজন লোক রাত ১০টা ২০ মিনিটের দিকে গোয়াল ঘরে প্রবেশ করে। কিছু সময় এদিক ওদিক তাকিয়ে সে একটি লাল রঙয়ের গাভীকে ২ বার করে ধর্ষণ করে চলে যায়।
পরে সিসিটিভি ফুটেজ দেখে আসামীকে শনাক্ত করে জানা গেছে হাপানিয়া রামচন্দ্রপুর গ্রামের হাফিজুর এ অপকর্ম করেছে। পরে অভিযুক্তকে ধরে এনে গোয়াল ঘরে বেঁধে রেখে পুলিশকে খবর দেয় গ্রামবাসী।পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে আসামী হাফিজকে আটক করে থানায় নিয়ে আসে। ওই সময় পুলিশের মাধ্যমে জনসম্মুখে ধর্ষণের কথা স্বীকার করে ধর্ষক হাফিজুর।
খামারী রেজাউল অভিযোগ করে বলেন, তার প্রায় আড়াই লাখ টাকা মূল্যের গাভীটি বিষক্রিয়া অথবা যে কোন উপায়ে হত্যা করেছে লম্পট হাফিজুর।
সাঁথিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ আসিফ মোহাম্মদ সিদিকুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, এ ব্যাপারে মামলা হয়েছে। আসামীকে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে।

আপনার মতামত লিখুন :