গৌরীপুরে জমি নিয়ে বিরোধে বাড়ি ও দোকানে ভাংচুর-লুটপাট

প্রকাশিত: ৮:২৩ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ২২, ২০২০

ময়মনসিংহের গৌরীপুরে চূড়ালী গ্রামে জমি সংক্রান্ত বিরোধে মোর্শেদ আলীর (৬০) বাড়ি-ঘর ও দোকানে হামলা চালিয়ে ব্যাপক ভাংচুর এবং লুটপাটের অভিযোগ ওঠেছে প্রতিপক্ষ নাদিম হাসান হৃদয় (২৫) গংদের বিরুদ্ধে। গত রবিবার ও সোমবার দু’দফায় এ হামলা এবং ভাংচুরের ঘটনাটি ঘটে।

মোর্শেদ আলী জানান, মৃত মাজহারুল ইসলাম গনির ছেলে প্রতিবেশী নাদিম হাসান হৃদয় গংদের সাথে তার জমি নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলে আসছে। এ বিরোধের জের ধরে রবিবার বিকেলে হৃদয় ও তার চাচা আব্দুস সাত্তারের (৪৫) নেতৃত্বে ১২ জন রামদা ও লাঠিসোটা নিয়ে মোর্শেদ আলীর বাড়ি-ঘরে হামলা চালিয়ে ভাংচুর ও লুটপাট করে। এ হামলার খবর পেয়ে ওইদিন গৌরীপুর থানার পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে উভয় পক্ষের ৩ জনকে আটক করে থানায় নিয়ে যান। পরে ঝগড়া-বিবাদ করবেনা এই মর্মে অঙ্গীকারনামায় মুচলেখা নিয়ে আপোস-মীমাংসার পর আটক ৩ জনকে ছেড়ে দেয়া হয়।

এদিকে থানায় দেয়া অঙ্গীকারনামার শর্ত ভঙ্গ করে হৃদয় ও সাত্তারের নেতৃত্বে পরদিন সোমবার বিকেলে মোর্শেদ আলীর দোকানে ভাংচুর ও লুটপাট করা হয়। এ সন্ত্রাসী হামলার ঘটনায় বুধবার গৌরীপুর থানায় লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন বলে মোর্শেদ আলী জানান।

স্থানীয় কয়েকজন এ হামলার সত্যতা স্বীকার করে জানান, হৃদয় ও আব্দুস সাত্তার গংরা দাঙ্গা ও অসামাজিক প্রকৃতির লোক। এদের অপকর্মের বিরুদ্ধে স্থানীয় কেউ প্রতিবাদ করতে সাহস পাননা।

এ ঘটনায় আব্দুস সাত্তার জানান, মোর্শেদ আলীর লোকজন নিজেরাই বাড়ি ও দোকান ভাংচুর করে এর দায় তাদের উপর চাপাচ্ছেন।

এ বিষয়ে গৌরীপুর থানার এস আই নজরুল ইসলাম জানান, রবিবার হামলা ভাংচুরের ঘটনায় উভয়পক্ষের লোকজনকে থানায় এনে বিষয়টি আপোস-মীমাংসা করে দেয়া হয়েছিল।