গৌরীপুরে শিক্ষক দম্পতি ও তাদের সন্তানকে অপহরণের অভিযোগ

গৌরীপুর নিউজ
প্রকাশিত : শনিবার ২৫ আগস্ট, ২০১৮ /

গৌরীপুর (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি :
মাদ্রাসার নাম পরিবর্তন নিয়ে দ্বন্দ্বের জেরে ময়মনসিংহের গৌরীপুর উপজেলার বোকাইনগর ইউনিয়নের স্বল্প পশ্চিমপাড়া গ্রামে নূরে মাদীনাহ মাদ্রসার প্রধান শিক্ষক উমর ফারুক (৩৫) তার স্ত্রী শিক্ষিকা মাহমুদা খাতুন (৩০) ও ছাত্রী সন্তান তন্নী বেগম (১২) কে অপহরণের অভিযোগ ওঠেছে একই গ্রামের মোস্তাকীম (৩৫) গংদের বিরুদ্ধে। শুক্রবার (২৪ আগস্ট) সকাল ৯টার দিকে উল্লেখিত গ্রামে এ অপহরণের ঘটনাটি ঘটেছে। এই মর্মে ওই মাদ্রাসার ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি মোঃ আবু সাঈদ বাদী হয়ে ঘটনারদিন রাতে গৌরীপুর থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন। অভিযোগে প্রকাশ স্বল্প পশ্চিমপাড়া গ্রামের আবু বক্কর সিদ্দিকের পুত্র মোস্তকীম গংরা ঘটনার সময় দেশীয় অস্ত্রে সজ্জিত হয়ে মাদ্রাসায় প্রবেশ করে। এসময় মাদ্রাসার প্রধান শিক্ষক উমর ফারুক, শিক্ষিকা মাহমুদা খাতুন ও ছাত্রী তন্নী বেগমকে মারধর করে তাদেরকে সিএনজিযোগে অপহরণ করে পার্শ্ববর্তী ঈশ্বরগঞ্জ উপজেলার দিকে নিয়ে যায়। খবর পেয়ে গৌরীপুর থানার পুলিশ ওইদিন ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। এ বিষয়ে জানতে চাইলে গৌরীপুর থানার এস আই শাহজালাল স্থানীয় লোকজন ও ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শীদের বরাত দিয়ে জানান, উল্লেখিত মাদ্রাসার শিক্ষক-শিক্ষার্থীকে অপহরণের কোন ঘটনা ঘটেনি। মাদ্রাসাটি স্থাপিত হয়েছিল প্রায় ১শ বছর পূর্বে। আগে মাদ্রাসাটির নাম ছিল স্বল্প পশ্চিমপাড়া হাফেজিয়া মাদ্রাসা। দেড় মাস পূর্বে এর নাম পরিবর্তন করে রাখা হয় মাদরাসা নূরে মাদীনাহ। এদিকে মাদ্রাসার প্রাচীন নাম পরিবর্তন করায় স্থানীয় লোকজনের মাঝে ক্ষুব্দ প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি হয়। এনিয়ে শুক্রবার সকালে ক্ষুব্দ এলাকাবাসী মাদ্রাসার নতুন নামকরনের সাইনবোর্ডটি খুলে নিয়ে যায় এবং মাদ্রাসার প্রধান শিক্ষককে মাদ্রাসা ত্যাগ করে চলে যেতে বলেন। এসময় ওই মাদ্রাসার প্রধান শিক্ষক উমর ফারুক তার স্ত্রী শিক্ষিকা মাহমুদা খাতুন ও সন্তান তন্নী বেগমকে নিয়ে মটর সাইকেলযোগে স্বেচ্ছায় মাদ্রাসাস্থল ত্যাগ করেন। মাদ্রাসা থেকে কিছুদূর যাওয়ার পর স্থানীয় একটি দোকানের সামনে মটর সাইকেল রেখে অটো রিক্সায় ওঠে তারা। পরবর্তীতে স্থানীয় মোস্তাকীম মেম্বার পুলিশকে ফোনে এ ঘটনাটি জানান এবং পুলিশের কাছে পরিত্যাক্ত মটর সাইকেলটি ও মাদ্রাসার একটি ব্যানার হস্তান্তর করেন।

আপনার মতামত লিখুন :