গৌরীপুরে শুধু ডিলারশিপ বাতিলেই রক্ষা পেলেন আওয়ামী লীগ নেতা

গৌরীপুর নিউজ
প্রকাশিত : বৃহস্পতিবার ১৬ এপ্রিল, ২০২০ /

হতদরিদ্রদের চল্লিশটি কার্ডের চাল উত্তোলন করে আত্মসাতের দায়ে ডিলারশিপ বাতিল হলেও সংশ্লিষ্ট আওয়ামী লীগ নেতার বিরুদ্ধে কোনো ধরনের আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি। ফলে লঘু সাজাতেই রক্ষা পেলেন ওই নেতা। এ নিয়ে এলাকায় চলছে নানা ধরনের আলোচনা সমালোচনা।

ময়মনসিংহের গৌরীপুর উপজেলার ২ নং গৌরীপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক রুকুনুজ্জামান পল্লবের ক্ষেত্রে এ ধরনের ঘটনা ঘটেছে। গত মঙ্গলবার ওই নেতার ডিলারশিপ বাতিল ও জামানাত বাজেয়াপ্ত করে প্রশাসন।

স্থানীয় সূত্র জানায়, খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির আওয়াতায় ১০ টাকা কেজি দরের চাল বিক্রির ডিলারশিপ পান পল্লবের মালিকানাধীন আরিয়ান ট্রেডার্স। ডিলারশিপ পাওয়ার থেকেই তার বিরুদ্ধে চাল আত্মসাতের অভিযোগ উঠতে থাকে। কিন্তু ক্ষমতাসীন দলের প্রভাবশালী নেতা হওয়ায় কোনো ধরনের আইনি পদক্ষেপ নিতে সাহস পায়নি প্রশাসন। এ অবস্থায় এক ধরনের ক্ষোভ তৈরি হয় উপকারভোগিদের মাঝে। এক পর্যায়ে স্থানীয় ৪০ জন হতদরিদ্রের কার্ডের বরাদ্দকৃত চাল প্রায় চার বছর ধরে কালোবাজারে বিক্রি করে আসছিলেন তা প্রকাশ পায় ডিলারের দোকানের সামনে উপকারভোগীদের তালিকা সাঁটানোর মাধ্যমে। পরে দুর্নীতির ঘটনা জানাজানি হলে ভুক্তভোগী হতদরিদ্ররা ডিলারের দোকান ঘেরাও করে বিক্ষোভের পর গত শনিবার উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবর লিখিত অভিযোগ করেন। এরই প্রেক্ষিতে তদন্ত সাপেক্ষে ওই ডিলারের ডিলারশিপ বাতিলসহ জামানত বাজেয়াপ্ত করা হয়। কিন্তু ডিলার পল্লবের বিরুদ্ধে আইনি কোনো ধরনের ব্যবস্থা না নেওয়ায় এক ধরনের প্রশ্ন দেখা দিয়েছে।

এ বিষয়ে গৌরীপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও খাদ্যবান্ধব কর্মসূচি বাস্তবায়ন কমিটির সভাপতি সেঁজুতি ধর জানান, ঘটনাটি নিয়ে অধিকতর তদন্ত চলছে। ডিলার দোষী সাব্যস্থ হলেই আইনি ব্যবস্থা। দোষী না হলে তো ডিলারশিপ বাথিল হয় না এমন প্রশ্ন করা হলে ইউএনও বলেন, সরাসরি কেউ অভিযোগ করেনি।

সূত্রঃ কালের কন্ঠ

আপনার মতামত লিখুন :