গৌরীপুরে শ্যালিকাকে ধর্ষণের অভিযোগে দুলা ভাই গ্রেফতার

গৌরীপুর নিউজ
প্রকাশিত : বৃহস্পতিবার ২৩ আগস্ট, ২০১৮ /

মশিউর রহমান কাউসার : লম্পট দুলা ভাইয়ের ধর্ষণের শিকার বিধবা শ্যালিকা ৮ মাসের অন্তঃসত্ত্বা। বিয়ের প্রলোভনে একাধিকবার ধর্ষণের ঘটনাটি এলাকায় জানাজানি হলে গ্রাম্য সালিশ-দরবারে শ্যালিকাকে বিয়ে করতে রাজী হলেও পরে নানা টালবাহানা শুরু করে দুলা ভাই। অভিযোগের প্রেক্ষিতে সোমবার (২০ আগস্ট) দিনগত রাতে পুলিশ লম্পট দুলা ভাই বাদল চন্দ্র বর্মন (৪৫) কে গ্রেফতার করেছে। এ ঘটনাটি ঘটেছে ময়মনসিংহের গৌরীপুর উপজেলার রামগোপালপুর ইউনিয়নের বীর পশ্চিমপাড়া গ্রামে। ধর্ষণের শিকার বিউটি রানী বর্মন (৩০) ওই গ্রামের মৃত তপন চন্দ্রের স্ত্রী। দুলা ভাই বাদল চন্দ্র বর্মন পার্শ্ববর্তী ঈশ্বরগঞ্জ উপজেলার ধামদী গ্রামের অবনী চন্দ্র বর্মনের ছেলে। অভিযোগে প্রকাশ ৬ বছর পূর্বে বিউটি রানীর বিয়ে হয় বীর পশ্চিমপাড়া গ্রামের তপন চন্দ্র বর্মনের সাথে। বিয়ের ৪ বছর পর তার স্বামী মারা যায়। এদিকে স্বামী মারা যাওয়ার সুযোগে বিউটির দুলা ভাই বাদল চন্দ্র তার স্বামীর বাড়িতে প্রতিনিয়ত আসা যাওয়ার মাধ্যমে তাকে কুপ্রস্তাব দিয়ে আসছিল। একপর্যায়ে ২২ জানুয়ারী রাতে নিজ ঘরে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে বিউটিকে ধর্ষণ করে বাদল। এরপর তাকে একাধিকবার ধর্ষণ করা হয়। এতে বিউটি অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়ার ঘটনা জানাজানি হলে স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গদের উপস্থিতিতে ২ আগস্ট এলাকায় এ নিয়ে সালিশ দরবার হয়। এসময় সালিশে সকলের সামনে বিউটিকে বিয়ে করার কথা স্বীকার করে বাদল। বিয়ের দিন তারিখও নির্ধারন করা হয় ওই সালিশে। পরবর্তীতে বিয়ের জন্য চাপ গ্রয়োগ করা হলে নানা টালবাহানা শুরু করে বাদল। তাই নিরুপায় হয়ে বিউটি বাদী হয়ে এ ঘটনায় গৌরীপুর থানায় অভিযোগ দায়ের করেন। অভিযোগের প্রেক্ষিতে সোমবার রাতে গৌরীপুর থানার এসআই শরীফ উদ্দিনের নেতৃত্বে পুলিশ তাকে গ্রেফতার করে। গৌরীপুর থানার ভারপ্রাপ্ত অফিসার ইনচার্জ রিপন চন্দ্র সরকার এ বিষয়ে সাংবাদিকদের জানান উক্ত ঘটনায় থানায় নারী শিশু নির্যাতন আইনে মামলা হয়েছে (মামলা নং-১৯ তাং-২১/০৮/১৮)।

আপনার মতামত লিখুন :