গৌরীপুরে সেফটিক ট্যাংকে কাজ করতে গিয়ে বিষাক্ত গ্যাসে নির্মাণ শ্রমিক ও মালিকের মৃত্যু

তিলক রায় টুলু
প্রকাশিত : রবিবার ২৭ সেপ্টেম্বর, ২০২০ /

ময়মনসিংহের গৌরীপুরে নির্মাণার্ধীন সেফটিক ট্যাংকে কাজ করতে গিয়ে বাড়ীর মালিক ও নির্মান শ্রমিক সহ দুই জনের মৃত্যু হয়েছে।

শনিবার (২৬ সেপ্টেম্বর) দুপুরে উপজেলার সিধলা ইউনিয়নের বেলতলি গ্রামে এ মৃত্যুর ঘটনাটি ঘটে।
নিহতরা হলেন উপজেলার বেলতলি গ্রামের মৃত জালাল উদ্দিনের ছেলে মোঃ কামাল মিয়া (৩৫)ও একই গ্রামের তোতা মিয়ার ছেলে নির্মাণ শ্রমিক মমিনুল হক(৩২)।

পুলিশ ও এলাকাবাসী সুত্রে জানাযায় উপজেলার সিধলা ইউনিয়নের বেলতলি গ্রামের মৃত জালাল উদ্দিনের ছেলে মোঃ কামাল মিয়া সম্প্রতি নিজ গ্রামে বাড়ী নির্মাণের কাজ শুরু করেন। নির্মাণকাজ কিছুদিন বন্ধ রেখে পুনরায় শনিবার দিন সেফটিক ট্যাংকের কাজ শুরু করেন। ঘটনার সময় নির্মাণ শ্রমিক মমিনুল সেফটিক ট্যাংকের ভিতর নামার পর ভেতর থেকে উঠে না আসায় বাড়ীর মালিক কামাল মিয়া তাকে উদ্ধার করতে ট্যাংকের ভেতরে নামেন। এ সময় দুজনেই ট্যাংকের বিষাক্ত গ্যাসের কারনে ভিতর অসুস্থ্য হয়ে পড়েন। দীর্ঘ সময় পড়েও দুজন ট্যাংকের ভিতর থেকে উঠে না আসায় পরিবারের লোকজন ও স্থানীয় লোকজন তাদের দুইজনকে উদ্ধার করে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার পথে দুজনেরই মৃত্যু হয়।

গৌরীপুর থানার ওসি বোরহান উদ্দিন জানান বেলতলি গ্রামে নির্মানাধীন একটি সেফটিক ট্যাংকে কাজ করতে গিয়ে প্রথমে নির্মান শ্রমিক ও পরে তাকে উদ্ধার করতে বাড়ীর মালিক কামাল মিয়া সেফটিক ট্যাংকের বিষ ক্রিয়ার অসুস্থ্য হয়ে পড়লে তাদেরকে দুজনকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নেওয়ার পথে তাদের মৃত্যু হয়েছে। পরিবারের লোকজনের আবেদনের প্রেক্ষিতে লাশ ময়না তদন্ত ছাড়াই আত্মীয় স্বজনের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। এ ঘটনায় অপমৃত্যুও মামলা দায়ের করা হয়েছে।

আপনার মতামত লিখুন :