গৌরীপুর শালিহরে গণশহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন ও মোমবাতি প্রজ্জ্বলন

স্টাফ রিপোর্টার
প্রকাশিত : বুধবার ২১ আগস্ট, ২০১৯ /

ময়মনসিংহের গৌরীপুর উপজেলার শালিহর গ্রামে বধ্যভূমির স্মৃতিসৌধে বুধবার সন্ধ্যায় উপজেলা প্রশাসন, বীর মুক্তিযোদ্ধা, মুক্তিযোদ্ধার সন্তান ও এলাকাবাসীর উদ্যোগে ৭১’র ২১ আগস্ট গণশহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন ও মোমবাতি প্রজ্জ্বলন করা হয়েছে।

উল্লেখ্য ১৯৭১ সনে ২১ আগস্ট পাক-হানাদার বাহিনী মুক্তিযোদ্ধাদের খুঁজতে গিয়ে শালিহর গ্রামে ১৪ জন নিরীহ মানুষকে ব্রাস ফায়ারে নির্মমভাবে হত্যা করে কদমতলা নামক স্থানে কবর দেয়। এদিন পাক-বাহিনী এ গ্রামের বীর মুক্তিযোদ্ধা মরহুম আবুল হাসিমের বাবা ছাবেদ হোসেন বেপারীকে ধরে নিয়ে যায়। এর আগে ১৬ মে ধরে নিয়ে যায় সাংবাদিক সুপ্রিয় ধর বাচ্চুর বাবা মধূ সূদন ধরকে। তারা আজো ফিরে আসেন নি।

এ গণহত্যা দিবস উপলক্ষে শালিহর বধ্যভূমিতে উপজেলা নির্বাহী অফিসার ফারহানা করিমের সভাপতিত্বে ও মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সন্তান কমান্ড পৌর শাখার সভাপতি মশিউর রহমান কাউসারের সঞ্চালনায় আলোচনা সভায় বক্তব্য দেন, বীর মুক্তিযোদ্ধা নাজিম উদ্দিন আহমেদ এমপি, উপজেলা চেয়ারম্যান মোফাজ্জল হোসেন খান, গৌরীপুর থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ কামরুল ইসলাম মিয়া, উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক কমান্ডার মোঃ আব্দুর রহিম, জেলা পরিষদ সদস্য এইচএম খায়রুল বাসার, জেলা আওয়ামীলীগের সদস্য শহীদ পরিবারের সন্তান নিলুফার আনজুম পপি, শহীদ পরিবারের সন্তান সাংবাদিক সুপ্রিয় ধর বাচ্চু, মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সন্তান কমান্ড উপজেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক হারুন অর রশিদ প্রমুখ।

এতে অংশগ্রহন করেন, উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক ডেপুটি কমান্ডার নাজিম উদ্দিন, বীর মুক্তিযোদ্ধা রহিমুদ্দিন, তোফাজ্জল হোসেন, মজিবুর রহমান, নিজাম উদ্দিন চিশতী, প্রদীপ বিশ্বাস, নুরুল আমিন, ইউপি চেয়ারম্যান আনোয়ার হোসেন, উপজেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আবুল কালাম আজাদ, উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান সোহেল রানা, সাবেক মহিলা ভাইস চেয়রাম্যান রাবেয়া ইসলাম ডলি, মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সন্তান কমান্ড উপজেলা শাখার সভাপতি আবুল ফজল মুহম্মদ হীরা, পৌর শাখার সাধারণ সম্পাদক উজ্জল চন্দ্র, সাংবাদিক কমল সরকার, আলী হায়দার রবিন, ফারুক আহাম্মদ, আব্দুল কাদির, উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি আল মুক্তাদির শাহিন, সাধারণ সম্পাদক ইমতিয়াজ সুলতান জনি, পৌর ছাত্রলীগের সভাপতি আল হোসাইন, সাধারণ সম্পাদক মোফাজ্জল হোসেন, সাবেক ছাত্রলীগ নেতা উমর ফারুক স্বাধীনসহ মুক্তিযোদ্ধার সন্তান ও স্থানীয় লোকজন।

আপনার মতামত লিখুন :