গ্রাহকের টাকা নিয়ে উধাও হওয়া ছাত্রলীগ নেতা বহিষ্কার

জেলা প্রতিনিধি
প্রকাশিত : শনিবার ২৬ জুন, ২০২১ /

টাঙ্গাইলের বাসাইল উপজেলায় এজেন্ট ব্যাংকিংয়ের গ্রাহকের টাকা হাতিয়ে নিয়ে পালিয়ে যাওয়ার ঘটনায় ফুলকী ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সভাপতি সারোয়ার হোসেন সবুজকে সংগঠন থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে।

উপজেলা ছাত্রলীগের আহ্বায়ক কামরান খান এবং যুগ্ম আহ্বায়ক রুবেল তালুকদার, নিশাদ খান ও নাহিদ হোসেনের যৌথ স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে শনিবার (২৬ জুন) এ বহিষ্কারের কথা জানানো হয়।

বহিষ্কারের চিঠিতে ডাচ্-বাংলা এজেন্ট ব্যাংকিংয়ের গ্রাহকদের টাকা আত্মসাৎ, দলীয় শৃঙ্খলাভঙ্গ ও ছাত্রলীগের ভাবমূর্তি নষ্ট করার কারণে তাকে সংগঠন থেকে বহিষ্কার করা হয় বলে উল্লেখ করা হয়েছে।

স্থানীয়রা জানান, সারোয়ার হোসেন ফুলকি ইউনিয়নের আইসরা গ্রামের মারিফত মিয়ার ছেলে। তিনি তিন বছর আগে আইসরা বাজারে ডাচ্ বাংলা ব্যাংকের এজেন্ট ব্যাংকিং বুথ চালু করেন। তিনি ব্যাংকিং নীতিমালা উপেক্ষা করে উচ্চহারে লাভের প্রলোভন দেখিয়ে গ্রাহকদের টাকা জমা রাখতে প্রলুব্ধ করেন। সম্প্রতি কয়েকজন গ্রাহক জমাকৃত টাকা উত্তোলন করতে গিয়ে দেখেন তাদের জমাকৃত টাকা ব্যাংকের হিসাবে নেই। পরে গ্রাহকরা সারোয়ারের কাছে এ ব্যাপারে জানতে চাইলে তিনি টাকা ব্যাংকে জমা না দিয়ে নিজের কাছে রাখার কথা স্বীকার করেন। পরে কয়েকজন গ্রাহক বাজারে শালিস বসালে সারোয়ার সবার টাকা ফেরত দেওয়ার আশ্বাস দেন। কিন্তু টাকা না দিয়ে তিনি গ্রাহকদের ঘোরাতে থাকেন। পরে প্রায় ১০ দিন ধরে এজেন্ট ব্যাংকের বুথ বন্ধ রেখে তিনি আত্মগোপন করেন। এ ঘটনায় গত বৃহস্পতিবার (২৪ জুন) প্রতারিত গ্রাহকরা আইসরা বাজারে মিছিল ও সভা করেন।

ফুলকি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জাহিদুল ইসলাম জানান, প্রতারণা করে টাকা নিয়ে পালিয়ে যাওয়ার ঘটনায় সারোয়ারের বিরুদ্ধে গ্রাহকরা অভিযোগ করেন। এ নিয়ে গত সপ্তাহে গ্রাহক ব্যাংক কর্তৃপক্ষ এবং বাজার কমিটির নেতাদের সমন্বয়ে শালিস বৈঠক হয়। সেখানে সারোয়ারের বাবা সম্পত্তি বিক্রি করে গ্রাহকের টাকা পরিশোধ করতে রাজি হন।

আপনার মতামত লিখুন :