ছোট ভাইয়ের প্রেমিকাকে ছিনিয়ে নিয়ে ধর্ষণ করলো বড় ভাই

জেলা প্রতিনিধি
প্রকাশিত : শুক্রবার ১৬ অক্টোবর, ২০২০ /

নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজারে এক মাদরাসাছাত্রীকে (১৪) গণধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে। প্রেমিকের কাছ থেকে ছিনিয়ে নিয়ে তার বড় ভাইসহ এক বন্ধু তাকে ধর্ষণ করেছে।

এ ঘটনায় বৃহস্পতিবার (১৫ অক্টোবর) রাতে উপজেলার ব্রাহ্মন্দী এলাকায় অভিযান চালিয়ে অভিযুক্ত প্রেমিকসহ তিনজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এ ঘটনায় ওই ছাত্রীর মা বাদী হয়ে আড়াইহাজার থানায় মামলা করেছেন।

গ্রেফতাররা হলেন- আড়াইহাজার উপজেলার ব্রাহ্মন্দী এলাকার মোতালিবের ছেলে নজরুল ইসলাম (২৫), তার বড় ভাই বাদল (৩৭) একই এলাকার মধ্যপাড়ার আবুল হোসেনের ছেলে মুছা (২৪)।

মামলা সূত্রে জানা গেছে, আড়াইহাজার উপজেলার ডহর মারুয়াদী এলাকার স্থানীয় মহিলা মাদরাসার ৮ম শ্রেণির ওই ছাত্রী মাদরাসার হোস্টেলে থেকে লেখাপড়া করে। নজরুল নিজের পরিচয় গোপন করে সাগর নামে ওই ছাত্রীর সঙ্গে মোবাইলে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তোলে। গত ১২ অক্টোবর মাদরাসার ট্যাংক পরিষ্কার করার সুযোগে ওই ছাত্রী গোসল করতে বাসায় আসে। পরে সন্ধ্যা ৭টার দিকে তার মা পরীক্ষার ফি দিয়ে তাকে মাদরাসায় পাঠিয়ে দেন। আধা ঘণ্টা পর তার মা মাদরাসায় গিয়ে জানতে পারেন মেয়ে মাদরাসায় যায়নি।

সন্ধ্যায় নজরুল ওই ছাত্রীকে ফুঁসলিয়ে বাড়ি হতে বের করে দেখা করেন। তখন নজরুলের আসল পরিচয় জেনে সে চলে আসতে চাইলে তাকে আটকে রাখা হয়। নজরুল তাকে ধর্ষণের চেষ্টা চালান। পরে নজরুলের বড় ভাই বাদল ও তার বন্ধু মুছা নজরুলকে শাসিয়ে মেয়েটিকে বাড়িতে পৌঁছে দেয়ার কথা বলে উপজেলার ব্রাহ্মন্দীর রবিন্দ্র বাবুর পুকুর পাড়ের একটি জঙ্গলে নিয়ে পালাক্রমে ধর্ষণ করে।

ওই ছাত্রীর মা বলেন, আমার মেয়েকে নজরুল অপহরণ করে নিয়ে গিয়েছিল। আমরা প্রথমে থানায় অপহরণের অভিযোগ দায়ের করেছিলাম। পরে জানতে পারি নজরুলের কাছ থেকে ছিনিয়ে তার বড় ভাইসহ তার সহযোগী আমার মেয়েকে ধর্ষণ করেছে। আমরা আসামিদের কঠিন শাস্তি চাই।

আড়াইহাজার থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নজরুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, এ ঘটনায় মামলার পর তিনজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তাদের ব্যাপারে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

আপনার মতামত লিখুন :