নকলায় যুবলীগ নেতার হাত-পা ও দাঁত ভেঙে দিয়েছে দুর্বৃত্তরা

গৌরীপুর নিউজ
প্রকাশিত : বুধবার ১ মে, ২০১৯ /

শেরপুরের নকলায় টালকী ইউনিয়ন যুবলীগের সহ-সভাপতি মমিনুল ইসলাম মানিকের হাত, পা ও ৩টি দাঁত ভেঙে দিয়েছে দুর্বৃত্তরা। মঙ্গলবার রাতে নকলা উপজেলার পাঠাকাটা চৌরাস্তা মোড়ে তার ওপর হামলার ঘটনা ঘটে।

ঘটনার পর স্থানীয়রা যুবলীগ নেতা মানিককে উদ্ধার করে প্রথমে নকলা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে অবস্থার অবনতি হওয়ায় রাতেই তাকে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এ ঘটনায় ৭ জনকে আসামি করে থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। তবে এখনও পুলিশ কাউকে গ্রেফতার করতে পারেনি।

টালকী ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি বজলুর রহমান জানান, রাত সাড়ে ৮টার দিকে নকলা শহর থেকে বাড়ি ফেরার পথে উপজেলার পাঠাকাটা চৌরাস্ত মোড়ে পৌঁছামাত্র পেছন থেকে মোটরসাইকেলযোগে ৬-৭ জন দুর্বৃত্ত যুবলীগ নেতা মমিনুল ইসলাম মানিকের ওপর হামলা চালায়। হামলায় মানিকের ২ পা, বাম হাত ও ৩টি দাঁত ভেঙে গেছে। পরে স্থানীয় লোকজন গুরুতর আহত অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে ইজিবাইকে নকলা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যান।

খবর পেয়ে নকলা উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মুক্তিযোদ্ধা শফিকুল ইসলাম জিন্নাহ, উপজেলা যুবলীগের আহ্বায়ক রফিকুল ইসলাম সোহেলসহ দলীয় নেতা-কর্মীরা মানিককে দেখতে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ছুটে যান। পরে যুবলীগ নেতা মানিকের অবস্থার অবনতি হওয়ায় রাতেই তাকে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়।

নকলা উপজেলা যুবলীগের আহ্বায়ক রফিকুল ইসলাম সোহেল জানান, জমিজমা নিয়ে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে টালকী ইউনিয়ন যুবলীগের সহ-সভাপতি মমিনুল ইসলাম মানিকের ওপর এ হামলার ঘটনা ঘটে। তাকে একা পেয়ে প্রতিপক্ষের লোকজন হামলা চালিয়েছে।

এ ঘটনায় নকলা থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কাজী শাহনেওয়াজ জানান, যুবলীগ নেতা মানিকের ওপর হামলার ঘটনায় তার বাবা নুরুল ইসলাম বাদী হয়ে মামলা করেছেন। অভিযোগের বিষয়ে তদন্ত হচ্ছে। ঘটনায় জড়িতদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

আপনার মতামত লিখুন :