প্রতিবন্ধী চার মেয়ে: ‘আমরা মরে গেলে ওদের দেখবে কে?’

জেলা প্রতিনিধি
প্রকাশিত : মঙ্গলবার ২২ অক্টোবর, ২০১৯ /

‘আমরা মরে গেলে ওদের দেখবে কে? কার কাছে রেখে যাব?’ সন্তানের দিকে তাকিয়ে প্রশ্ন করেন বাবা-মা। ঘরের কোণে তখন নিবিষ্ট চিত্তে বসে আছেন প্রতিবন্ধী চার বোন।

সন্তানদের রাত-দিন সর্বক্ষণ আগলে রাখেন ময়মনসিংহের ফুলবাড়িয়া উপজেলার রাধাকানাই ইউনিয়নের গাঙবড়াইল গ্রামের বাসিন্দা হতদরিদ্র ইব্রাহিম মিয়া দম্পতি। তাদের অবর্তমানে চার সন্তানকে আগলে রাখার কাজটা কে করবে, সেই উদ্বেগ থেকেই এসব প্রশ্ন তাদের।

সকাল থেকে রাত অবধি প্রতিবন্ধী চার কন্যার পায়খানা, প্রস্রাব, গোসল, খাওয়া-দাওয়া থেকে শুরু করে সবই করাতে হয় তাদের। এসব করতে করতে আর ভাবতে ভাবতে ইব্রাহিমের স্ত্রীও এখন অনেকটা মানসিক ভারসাম্যহীন।

সহায় সম্বলহীন ইব্রাহিমের পরিবারের জীবন চলছে কঠিন দরিদ্রতায়- কোন দিন খেয়ে, আবার কোন দিন অনাহারে। মূলত মানুষের সাহায্যেই চলছে ওদের দিন। ঠিকমত গোসল নেই, কাপড় নেই এই পরিবারের সদস্যদের। বড় মেয়ের বয়স ৩৫, আর ৪র্থ কন্যার বয়স ১৮। একরকম গড়িয়ে গড়িয়েই চলাফেরা করে তারা।

ময়মনসিংহ বিভাগীয় সাহিত্য পরিষদের সভাপতি এবং আনোয়ারা করিম সমাজ কল্যাণ সংস্থার সভাপতি কাব্য সুমী সরকার এবং সংস্থার সাধারণ সম্পাদক সৌরভ দত্ত দিপু এই পরিবারের সন্ধান পান।

তারা জানান, সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুক বার্তায় এই পরিবারের খবর প্রকাশ করে এদের জন্য সাহায্য প্রার্থনা করছি।

আপনার মতামত লিখুন :