ভুয়া বিকাশ বার্তায় ডিজিটাল প্রতারণা, পোশাককর্মীর ৬৩ হাজার টাকা গচ্চা

উপজেলা প্রতিনিধি
প্রকাশিত : রবিবার ২৯ ডিসেম্বর, ২০১৯ /

ময়মনসিংহের গফরগাঁও পৌরশহরে বিকাশের মাধ্যমে প্রতারণার শিকার হয়েছে রাহিম(২৫)নামে এক পোষাক কর্মী।ঘটনাটি ঘটেছে শনিবার (২৮ ডিসেম্বর) সন্ধ্যায় শিবগঞ্জ রেলওয়ে ক্রসিং সংলগ্ন শরিফুলের বিকাশের দোকানে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়,পৌর শহরের ইমামবাড়ী এলাকার মানিক মিয়ার ছেলে পোষাক কর্মী রাহিমের মোবাইলে বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে কল আসে। মোবাইলের অপরপ্রান্ত থেকে তাকে জানায় যে, রাহিম গ্রামীণফোন কাস্টমার কেয়ার সার্ভিস থেকে অফার পেয়েছে। সাথে সাথে তার মোবাইলে ৯৫ হাজার টাকা আসার একটি ম্যাসেজ আসে।এর পর আবার অজ্ঞাত নম্বর থেকে ক্ষুদে বার্তায় চারটি মোবাইল নম্বর দিয়ে বলা হয় তার বিকাশ একাউন্টে প্রেরণ করা ৯৫ হাজার টাকা উত্তোলন করতে হলে ওই চারটি নম্বরে ৬৩ হাজার টাকা পাঠাতে হবে।

প্রলুব্ধ হয়ে পোশাককর্মী রাহিম ক্ষুদে বার্তাটি যাচাই ছাড়াই শিবগঞ্জ রেলক্রসিং এলাকার বিকাশ এজেন্ট শরিফুলের দোকানে এসে প্রতারকদের দেওয়া চারটি নম্বর ০১৮৮৮৫৭১৩৬৪, ০১৮৮৮৫৭১৭৬৯, ০১৪০৮২০৫৬২৭, ০১৮৮৮৫৩৯২০৬-এ মোট ৬৩ হাজার টাকা পাঠায়। এতে বিকাশ এজেন্ট শরিফুলের সন্দেহ হলে সে রাহিমকে টাকা দিতে বলে।

পরে তাকে বিকাশে টাকা পাঠাতে বলে যদি সে টাকা পাঠায় তাহলে সে তিন বৎসর যেকোন অপারেটরে ফ্রি কথা বলাসহ তিন লক্ষ টাকা পাবে। লোভনীয় অফার পেয়ে সে তার মা ও স্ত্রী সহ পৌরশহরের শিবগঞ্জ রোডস্থ শরিফুলের বিকাশের দোকান থেকে চার ধাপে ৬৩ হাজার টাকা পাঠায়।পরে ওদের সাথে যোগাযোগ করলে গালিগালাজ শুরু করে মোবাইল ফোন বন্ধ করে দেয়।

এদিকে বিকাশের দোকানে রাহিম টাকা দিতে দেরি করায় দোকানীর সন্দেহ হয়। এ সময় রাহিম তার মোবাইলে ৯৫ হাজার টাকা আসার ক্ষুদে বার্তাটি দেখিয়ে ৯৫ হাজার টাকা উত্তোলন করে দোকানিকে বাকি টাকা ফেরত দিতে বলে। দোকানি ক্ষুদে বার্তাটি পরীক্ষা করে জানায়, এটি ভুয়া বার্তা এবং রাহিমের বিকাশ একাউন্টে কোনো টাকা আসেনি। এ সময় দোকানি রাহিমকে আটক করে। পরে রাহিমের স্বজনরা এসে টাকা দিয়ে তাকে ছাড়িয়ে নিয়ে যায়।

ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী জনি মোবাইল কর্নারের স্বত্বাধিকারী শাহরিরার আহমেদ জনি জানায়,লোকটি প্রতারণার শিকার হয়েছে। এভাবে না বুঝে তার টাকা পাঠানো উচিত হয়নি।

প্রতারণা শিকার রাহিম জানায়, ওদের লোভনীয় অফার পেতে আমি বিকাশে টাকা দেই। লোভের কারনে আজ আমি প্রতারণার শিকার।

আপনার মতামত লিখুন :