ময়মনসিংহের শিশু অপহরণের ঘটনায় ৩ অপহরণকারী গ্রেফতার

ওবায়দুর রহমান
প্রকাশিত : বৃহস্পতিবার ২৯ এপ্রিল, ২০২১ /

ময়মনসিংহ জেলার গৌরিপুর উপজেলার ভাংনামারী চর এলাকার জাহিদুল ইসলামের ৭ বছরের ছেলে মোঃ এসতেফাককে অপহরণের ৪ দিন পর ঢাকার মানিকগঞ্জ থেকে উদ্ধার করেছে পুলিশ। আর এঘটনায় জড়িত থাকার অপরাধে অপহরণকারী চক্রের ৩ সদস্য রিক্সা চালককে ঢাকার সাভার থেকে আটক করেছে পুলিশ।

মঙ্গলবার গভীর রাতে মানিকগঞ্জ জেলার সদর থানা নবগ্রাম ইউনিয়নের বাড়াঙ্গাইল গ্রাম থেকে অপহৃত শিশুটিকে উদ্ধার করার পাশাপাশি ৩ অপহরণকারী চক্রের সদস্যকে আটক করে পুলিশ। এরআগে ২৩শে এপ্রিল শুক্রবার সাভারের কর্ণপাড়া এলাকায় বাড়ির পাশে একটি খেলার মাঠ থেকে ওই শিশুটিকে কৌশলে অপহরণ করা হয়। আটককৃতরা হচ্ছে-মানিকগঞ্জ জেলা সদর থানার বারইলা গ্রামের হারুণের ছেলে হাবু মিয়া (৪০), একই থানার পাঁচবাড়ি গ্রামের তোতা মিয়ার ছেলে বাদশা মিয়া (৩৪) এবং মানিকগঞ্জ হরিরামপুর থানার গোপালপুর গ্রামের চাঁন বেপারির ছেলে করিম বেপারী (৩৬)।

সাভার মডেল থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) হামিদুর রহমান বলেন-গত শুক্রবার বেলা ১১টার দিকে কর্ণপাড়া এলাকায় বাড়ির পাশে খেলার মাঠে খেলতে যায় শিশু এসতেফাক। এসময় অপহরণকারীদের এক সদস্য শিশুটিকে পাখি কিনে দেয়ার কথা বলে আড়ালে ডেকে নিয়ে অপহরণ করে। অনেক খোঁজাখোঁজি করেও শিশুটির সন্ধান না পেয়ে সাভার মডেল থানায় নিখোঁজ হওয়ার একটি সাধারন ডায়েরি করেন শিশু এসতেফাকের স্বজনরা। এরপর গতকাল ২৭শে এপ্রিল মঙ্গলবার শিশুটির নানার মুঠোফোনে কল করে ১ লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করে অপহরণকারী চক্রের সদস্যরা। পরে ঘটনাটি পুলিশকে জানলে অপহরণকারীদের ধরতে বিকাশের মাধ্যমে ৫ হাজার টাকা পাঠিয়ে জাল পাতে পুলিশ। এরই সূত্র ধরেই তথ্য ও প্রযুক্তির সহায়তায় মানিকগঞ্জে অপহরণকারীদের অবস্থান নিশ্চিত করে পুলিশ। পরে র‌্যাব-৪ এর সহযোগিতায় মঙ্গলবার গভীর রাতে সাভার সদর থানার বাড়াইল গ্রামে অভিযান চালিয়ে অপহৃত শিশুটিকে উদ্ধার করে। এসময় অপহরণকারী চক্রের ৩ সদস্যকে আটক করা হয়।
পুলিশ জানায়-আটককৃতরা একটি সংঘবদ্ধ অপহরণকারী দলের সদস্য। তারা রিক্সা চালানোর আড়ালে শিশু অপহরণসহ মুক্তিপণ দাবী করে থাকে। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে তারা অপহরণের কথা স্বীকার করেছে।

আপনার মতামত লিখুন :