ময়মনসিংহে আনসারুল্লাহ বাংলা টিমের ৫ সদস্য গ্রেফতার

জেলা প্রতিনিধি
প্রকাশিত : রবিবার ১৩ অক্টোবর, ২০১৯ /

নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গি সংগঠন আনসারুল্লাহ বাংলা টিমের ৫ জন সক্রিয় সদস্যকে গ্রেফতার করেছে ময়মনসিংহ র‌্যাব-১৪। এসময় উদ্ধার হয়েছে বিভিন্ন উগ্রবাদী বই।

রোববার (১৩ অক্টোবর) রাতে র‍্যপিড এ্যাকশন ব্যাটালিয়ন ময়মনসিংহ র‍্যাব-১৪ এর সহকারী পুলিশ সুপার ও মিডিয়া অফিসার মোঃ তফিকুল আলম এই খবরের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

গ্রেফতারকৃতরা তারা হলেন, আবুল কালাম আজাদ (২৭), মোঃ রুহুল আমিন (২৩), মোঃ মিজান (২২), মোঃ আব্দুলাহ (২৩) এবং মোঃ ওয়াজেদ আলী (৩০)কে গ্রেফতার করে। এ সময় তাদের কাছ থেকে বিপুল পরিমান বিভিন্ন উগ্রবাদী বই উদ্ধার করা হয়।

তিনি জানান, সম্প্রতি র‌্যাবের গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে র‌্যাব-১৪ ময়মনসিংহের একটি বিশেষ টিম পাবনা জেলার বেড়া পৌরসভা এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে। এ সময় নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গি সংগঠন আনসারুল্লাহ বাংলাটিমের ৫ জন সক্রিয় সদস্যকে গ্রেফতার করা হয়। পরে তদের প্রাথমিক জিঞ্জাসাবাদে জানা যায় যে, গ্রেফতারকৃত ৫ জন আসামী সরকার কর্তৃক নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গি সংগঠন “আনসারুল্লাহ বাংলাটিম” এর সক্রিয় সদস্য, এবং জসিম উদ্দিন রহমানীর অনুসারী। তাদের সকলের বাড়ি পাবনা জেলার বেড়া পৌরসভা এলাকায়। গ্রেফতারকৃতদের মধ্যে আবুল কালাম আজাদ আঞ্চলিক প্রধান হিসেবে কাজ করত। সে বিভিন্ন ফেসবুক আইডির মাধ্যমে বিভিন্ন উগ্রবাদী বই এবং তাগুদ সম্পর্কে পোষ্ট ও কমেন্ট করে ফেসবুক ব্যবহারকারীদের উদ্ভুদ্ধ করার চেষ্টা করে।

তিনি আরও জানান, গ্রেফতারকৃতরা দেশের মধ্যে হিজরত এবং জিহাদ করার জন্য যে কোন সময় প্রস্তুত ছিল। তারা জসিমউদ্দিন রহমানীর লেখাসহ বিভিন্ন প্রকার উগ্রবাদী বই সংগ্রহ করে এলাকার যুবসমাজের মাঝে বিতরণ করত এবং তাদের উগ্রবাদে উৎসাহ প্রদান করত। তারা ঢাকার বিভিন্ন পাবলিকেশন থেকে মোবাইলে জসিমউদ্দিন রহমানীর বই ক্রয় করত এবং করতোয়া কুরিয়ার সার্ভিসে তাদের কাছে বই আনা নেয়া করত। তারা বিভিন্ন প্রকার উগ্রবাদী বই থেকে লোকজনকে উগ্রবাদে উদ্ভুদ্ধ করার জন্য গুরুত্বপূর্ণ অংশ কম্পিউটারে টাইপ করে সীট আকারে বিতরণ করত। বিশেষ করে নবম-দশম শ্রেণীতে পড়ুয়া ছাত্রদেরকে উগ্রবাদ সম্পর্কে উৎসাহিত করাসহ তাদের দলে অন্তর্ভুক্ত করার চেষ্টা করত।

র‍্যাবের এই কর্মকর্তা দাবি করে আরও বলেন, তাদের ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা হলো সদস্য ও অর্থ সংগ্রহ করে সংগঠনকে পুণরায় সক্রিয় করে তোলা এবং দেশের মধ্যে হিজরত করে তাগুদের বিরুদ্ধে জিহাদে অংশগ্রহণ করা।

আপনার মতামত লিখুন :