ময়মনসিংহে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে ছাত্রলীগ নেতা গ্রেপ্তার

জেলা প্রতিনিধি
প্রকাশিত : সোমবার ৩০ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ /

ময়মনসিংহে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের মামলায় এক ছাত্রলীগ নেতাকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। গ্রেপ্তার হওয়া ছাত্রলীগ নেতার নাম মাসুদ রানা বিজয়। পত্রিকায় প্রকাশিত এক সংবাদ প্রকাশের পর সেটা যাচাই-বাছাই না করে উদ্দেশ্যমূলকভাবে ফেসবুকে শেয়ার করে তা ভাইরাল করার অভিযোগে আজ সোমবার ভোর ৪টায় তাঁকে গ্রেপ্তার করা হয়।

মাসুদ রানা বিজয় ময়মনসিংহ সদর উপজেলার সিরতা ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সভাপতি। তিনি সাবেক ধর্মমন্ত্রী অধ্যক্ষ মতিউর রহমানের সমর্থক বলে পরিচিত। তাঁর চাচা আবু সাঈদ ময়মনসিংহ কোতোয়ালি থানা যুবলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক।

মামলার সূত্রে জানা যায়, “সম্পাদক ডটকম” নামে একটি অনলাইন নিউজ পোর্টালে গত ২৮ সেপ্টেম্বর ময়মনসিংহ জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি, সাধারণ সম্পাদক ও মহানগর আওয়ামী লীগের সহসভাপতি এবং ময়মনসিংহ সিটি করপোরেশনের মেয়রের বিরুদ্ধে দুর্বৃত্তদের আশ্রয় দিয়ে কোটি টাকার মালিক ময়মনসিংহ আ.লীগ নেতারা ক্ষমতার পালাবদলে হঠাৎ সম্পদশালী শামীম, টিটু, মোয়াজ্জেম শিরোনামে সংবাদ প্রকাশিত হয়।

এই সংবাদে জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি আমিনুল হক শামীম, সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট মোয়াজ্জেম হোসেন বাবুল ও ময়মনসিংহ সিটি করপোরেশনের মেয়র ইকরামুল হক টিটু ক্ষুব্ধ হয়ে গতকাল রোববার রাতে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে বাদী হয়ে মময়মনসিংহ কোতোয়ালি মডেল থানায় আলাদা তিনটি মামলা করেন। মামলায় বেশ কয়েকজনকে আসামি করা হয়।

ছাত্রলীগ নেতা মাসুদ রানা বিজয় তাঁদের একজন। মামলায় বাদীরা দাবি করেছেন, সংবাদটি তাঁদের মানহানি ঘটিয়েছে। সেই মানহানিকর মিথ্যা সংবাদটি যাচাই-বাছাই ছাড়া উদ্দেশ্যমূলকভাবে ফেসবুকে শেয়ার করে মানহানি ও বিভ্রান্তি সৃষ্টি করা হয়েছে। সেই সংবাদ যাঁরা শেয়ার করেছেন, তাঁদের মধ্যে একজন ছিলেন মাসুদ রানা। ওই সংবাদে ময়মনসিংহে সংঘটিত কয়েকটি হত্যাকাণ্ড, জমি দখল, পদবাণিজ্য নিয়ে নেতাদের দায়ী এবং কারো কারো রাজনৈতিক পরিচয় বিকৃত করা হয়েছে।

এদিকে, মামলার বিষয় নিয়ে কথা বলতে বাদী আমিনুল হক শামীমকে ফোন করা হলে তাঁকে পাওয়া যায়নি।

আপনার মতামত লিখুন :