ময়মনসিংহে হত্যা মামলায় বাবা-ছেলেসহ চারজনের যাবজ্জীবন

জেলা প্রতিনিধি
প্রকাশিত : বৃহস্পতিবার ২৫ জুলাই, ২০১৯ /

ময়মনসিংহের ফুলপুরের ছনধরা ইউনিয়নের বাঁশাটি গ্রামে ওমর ফারুক হত্যায় বাবা-ছেলেসহ চারজনের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। বুধবার দুপুরে ময়মনসিংহের অতিরিক্ত দায়রা জজ ২য় আদালতের বিচারক মুহাম্মদ নূরুল আমীন বিপ্লব রায় দেন।

দণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন- বাঁশাটি গ্রামের মৃত কফিল উদ্দিনের ছেলে শাহ জামাল নয়ন (৬২), তার ছেলে রেজাউল করিম (৩৪), মৃত মিয়া হোসেনের ছেলে আজাহার উদ্দিন (৫৭) ও রুহুল আমীন বক্সের ছেলে সুলতান মিয়া (৫২)। আসামিদের মধ্যে বাবা শাহ জামাল নয়ন ও ছেলে রেজাউল করিম পলাতক রয়েছেন।

মামলার বিবরণে জানা যায়, ২০০৭ সালে ৩০ মে সকালে ফুলপুর উপজেলার ছনধরা ইউনিয়নের বাঁশাটি গ্রামে চলাচলের রাস্তা নিয়ে বিরোধের জেরে বাগবিতণ্ডার একপর্যায়ে আইয়ুব আলীর ছেলে ওমর ফারুককে লাঠি ও লাঙ্গলের হাতল দিয়ে আঘাত করে প্রতিপক্ষরা। এ সময় প্রতিপক্ষের আঘাতে মারাত্মক আহত হন ওমর ফারুক। পরে স্থানীয়রা ওমর ফারুককে উদ্ধার করে প্রথমে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ও পরে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় পরদিন তার মৃত্যু হয়। এ ঘটনায় ১ জুন নিহতের বাবা আইয়ুব আলী বাদী হয়ে ফুলপুর থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন। পরে পুলিশ ঘটনার তদন্ত শেষে আটজনকে আসামি করে আদালতে চার্জশিট দাখিল করে।

বিচার প্রক্রিয়া ও শুনানি শেষে চার আসামির বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় আদালত তাদের যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেন। বাকি চারজনের বিরুদ্ধে কোনো অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়ায় তাদের মামলা থেকে অব্যাহতি দেয়া হয়।

রাষ্ট্রপক্ষে এপিপি মশিউর রহমান ফারুক ও আসামিপক্ষে মো. আনিসুর রহমান হাতেম মামলাটি পরিচালনা করেন।

আপনার মতামত লিখুন :