রাজনীতিতে খালেদা জিয়া ছাগলের তিন নম্বর বাচ্চা : আহম্মদ হোসেন

গৌরীপুর নিউজ
প্রকাশিত : শুক্রবার ১৭ এপ্রিল, ২০১৫ /

রাজনীতিতে খালেদা জিয়া ছাগলের তিন নম্বর বাচ্চা : আহম্মদ হোসেন
Gouripur Boishaik Pioc--2সাজ্জাতুল ইসলাম সাজ্জাত : বাংলাদেশ কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আহম্মদ হোসেন বলেছেন, ছাগলের তিনটি বাচ্চা হলে দুইটি দুধ খায় আর অন্যটি শুধু লাফায়। এখন বাংলাদেশের রাজনীতিতে বিএনপি নেত্রী বেগম খালেদা জিয়া ছাগলের তিন নম্বর বাচ্চার মতো লাফাচ্ছেন। কারণ সংসদের বিরোধী দলের নেতার পদটি হারিয়ে তিনি এখন দিশেহারা হয়ে গেছেন। ক্ষমতার মোহে গত তিন মাসে তিনি পেট্রোল বোমা মেরে ১৩০ জন নারী-পুরুষ ও শিশুকে হত্যা করেছেন।
ময়মনসিংহের গৌরীপুর উপজেলার শ্যামগঞ্জ রেলওয়ে মাঠে আয়োজিত তিনদিন ব্যাপী বৈশাখী মেলার সমাপনী অনুষ্ঠানে বৃহষ্পতিবার রাতে প্রধান অতিথির ভাষণে তিনি এসব কথা বলেন।
এসময় তিনি আরো বলেন, খালেদা জিয়া বলছেন নির্বাচন ! কিসের নির্বাচন ? নির্বাচন তো হয়েই গেছে। আবার নির্বাচন হবে ২০১৯ সালে। এই সরকার পুরো পাচঁ বছর ক্ষমতায় থাকবে। খালেদা জিয়াকে উদ্যেশ্য করে বলেন, শখ থাকলে নির্বাচনে আসেন যেন। ‘গোলাপী এখন ট্রেনে’ ছবির নায়িকা গোলাপীর সাথে খালেদা জিয়াকে তুলনা করে বলেছেন, বাংলাদেশের রাজনীতিতে খালেদা জিয়া এখন গোলাপী। গোলাপীর মতো তিনি কোন কথা বলেন না। তিনি ঘরে বসে পেট্রোল বোমা মেরে শুধু মানুষ হত্যা করছেন। আমরাও বলছি মানুষ হত্যা করে আপনি আর ক্ষমতায় যেতে পারবেন না। ভেবেছেন চার বছর পর নির্বাচন হবে ? ওই নির্বাচনে আপনি অংশ নিতে পারবেন না। কারণ আপনি এবং ছেলে তারেকের বিরুদ্ধে অসংখ্য দূর্নীতির মামলা রয়েছে। এগুলোতে দোষি সাবস্ত্য হলেই তার নির্বাচন শেষ। এই বাংলাদেশে রাজাকার আর খালেদা জিয়ার নয়। এটি শেখ হাসিনার বাংলাদেশ। তিনি এদেশে শান্তি উপহার দিয়েছেন। শেখ হাসিনার মতো যোগ্য ও সাহসী নেতা পৃথিবীতে একজনও নাই।

বিএনপি নেতাকর্মীদের উদ্যোশে তিনি বলেন, বিএনপির বন্ধুরা চাতক পাখির মতো আকাশের দিকে তাকিয়ে থাকবেন না। কখন বৃষ্টি হবে এক ফোটা পানি খাবেন। আর আপনার নেত্রী খালেদা জিয়া কখন প্রধানমন্ত্রী হবেন, এই আশা এখন দুর-আশা, দুস্বপ্ন। খালেদা জিয়া আর বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী হতে পারবেন না। তাই আপনরা পালিয়ে থাকবেন না।

আপনাদের জন্য গৌরীপুরে ক্যাপ্টেন মজিবুর রহমান ফকির এমপি আওয়ামী লীগের দরজা খুলে দিয়েছেন। এই দরজা দিয়ে শুধু ভাল মানুষগুলো প্রবেশ করবেন। আপনাদের ফুল দিয়ে বরণ করা হবে। স্থানীয় এমপি সাবেক স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রী ডা. ক্যাপ্টেন (অব.) মজিবুর রহমান ফকিরকে উদ্যেশ করে বলেন, মজিব হলেন রাজার রাজা। পাবলিকের মনে বিভাবে ঢুকতে হয় তা তিনি জানেন। তিনি সময়ে গরম আবার সময়ে নরম হন। এই মিলে মজিবুর রহমান ফকির।

Boishaik Pioc--1বিশেষ অতিথির বক্তব্যে সাবেক স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রী ডা. ক্যাপ্টেন (অব.) মজিবুর রহমান ফকির এমপি বলেন,এরশাদ ও রওশনের লাগাম এখন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাতে। তাই উল্টাপাল্টা ছুটাছুটি করে কোন লাভ নেই। স্বাধীনতার চেতনা ধারন করে শেখ হাসিনার উন্নয়নের সাথে একাত্বতা প্রকাশ করতে হবে। শেখ হাসিনা হ্যামিলনের বংশি বাধক। এই বাশিঁর সুরে মুগ্ধ হয়ে গৌরীপুরে বিরোধী দলের লোকজন দলে দলে আওয়ামী লীগের যোদগান করছেন।

তিনি আরো বলেন, রাজনৈতিকভাবে বেগম খালেদা জিয়া এখন লাইফ সার্পোটে বেঁচে আছেন। এ লাইফ সার্পোট থেকে রা পেতে হলে তাকে সুস্থ রাজনীতিতে ফিরে আসতে হবে। যদি তাকে জীবন রা করতে হয়, তাহলে নির্বাচনের মধ্য দিয়ে আবার রাজনৈতিকভাবে দাঁড়াতে হবে। বিগত দিনে যে ভুল করেছিলেন, এবারও সেই ভুল করলে তাদের চরম মূল্য দিতে হবে। উনার আন্দোলনের কোনো ফলাফল নেই, উনি শুধুমাত্র দম নিচ্ছেন আর যাচ্ছেন। উনি এখন রাজনীতির কোমায় আছেন। আর এ থেকে রার একমাত্র পথ হলো সন্ত্রাস ছেড়ে গণতন্ত্রের পথে আসা। সমাজের প্রতিটি মানুষ একত্রিত হয়ে জঙ্গিবাদকে মোকাবেলা করতে হবে। এসরকার মুক্তিগামী জনতার পক্ষের সরকার। উন্নয়নের সরকার। এ সরকার বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন বাস্তবায়নে দেশের মানুষের ভাগ্য উন্নয়নে নিরলস ভাবে কাজ করে যাচ্ছেন। দেশের উন্নয়নে বাধাঁ দিয়ে একটি কুচক্রী গোষ্ঠি জঙ্গিদের সাথে আতাঁত করে দেশে অরাজকতা সৃষ্টি করছে। তাদের এ স্বপ্ন কোন দিন বাস্তবায়িত হবে না। জঙ্গিবাদের নেত্রী খালেদা জিয়া এখন নির্বাসিত। তার কথা এখন দেশের মানুষ শুনে না। খালেদার আন্দোলন এখন ভেস্তে গেছে।
বৈশাখী মেলা উদযাপন পরিষদের আহবায়ক সুশান্ত কুমার রায় তপন এর সভাপতিত্বে অন্যান্যদের মাঝে বক্তব্য রাখেন পূর্বধলা উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এরশাদ হোসেন মালু, উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান সানাউল হক, গৌরীপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আবুল কালাম আজাদ, পৌর সভার সাবেক মেয়র মো: শফিকুল ইসলাম হবি, আওয়ামীলীগ নেতা এডভোকেট জসিম উদ্দিন আহাম্মদ, এডভোকেট গোলাম মোস্তুফা, তপন সাহা, বেলায়েত হোসেন মনুজ প্রমুখ।

আপনার মতামত লিখুন :