‘রাশেদকে তুমি বাঁচতে দিও না আম্মু’

জেলা প্রতিনিধি
প্রকাশিত : শনিবার ১২ ডিসেম্বর, ২০২০ /

‘রাশেদকে তুমি বাঁচতে দিও না আম্মু। রাশেদ আমাকে তিলে তিলে শেষ করে দিয়েছে। রাশেদের কারণে আমি আমার জীবন শেষ করে দিলাম। কারণ রাশেদের বাচ্চা আমার পেটে।’ এমন একটি চিরকুট লিখে আত্মহত্যা করেছে অষ্টম শ্রেণির এক স্কুলছাত্রী।

ঘটনাটি বৃহস্পতিবার রাতে শেরপুর সদর উপজেলার কুঠুরাকান্দা পশ্চিমপাড়া এলাকায় ঘটলেও শুক্রবার সন্ধ্যায় বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন সদর থানার ওসি।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানায়, সদর উপজেলার কুঠুরাকান্দা পশ্চিমপাড়া এলাকার রহমতুল্লাহর মেয়ের সঙ্গে পূর্বপাড়া এলাকার স্কুলছাত্র রাশেদের প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। এক পর্যায়ে বন্ধুদের সহযোগিতায় ওই স্কুলছাত্রীর সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক গড়ে তোলে রাশেদ।

চিরকুটে লেখা তথ্য অনুযায়ী, এরই মধ্যে সে অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পড়ে। কিন্তু রাশেদ প্রেমের সম্পর্ক অস্বীকার করে। এতে দিশেহারা হয়ে লজ্জায় চিরকুট লিখে আত্মহত্যা করে ওই স্কুলছাত্রী। ওই রাতেই পুলিশ মরদেহ ও চিরকুট উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে।

চিরকুটে আরও লেখা ছিল, মৌসুমি, মেঘলা, সাজেদা, আজাদ, খুশি, নিশি, শফিক, মোশারফ ও ময়নালের সহায়তায় তার ও রাশেদের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে এবং এ অনৈতিক ঘটনা ঘটে। এছাড়াও রাশেদের কাকা তামজিদসহ তারা সবাই মিলে তার জীবন শেষ করে দিয়েছে। তাদেরকে ক্ষমা না করার জন্যও বলা হয়েছে ওই চিরকুটে।

এ ব্যাপারে শেরপুর সদর থানার ওসি আব্দুল্লাহ আল মামুন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, রাতেই পুলিশ ওই স্কুলছাত্রীর মরদেহ ও একটি চিরকুট উদ্ধার করে। মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য শেরপুর জেলা হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

আপনার মতামত লিখুন :