শেরপুরে পিকনিকের বাসের চাপায় নিহত দুই, বাস পোড়াল জনতা

প্রকাশিত: ১:৪২ পূর্বাহ্ণ, ফেব্রুয়ারি ২৭, ২০২০

শেরপুর সদর উপজেলার কুসুমহাটিতে পিকনিকের বাসের চাপায় ব্যাটারিচালিত একটি ভ্যানের চালক ও যাত্রী নিহত হয়েছেন। বুধবার (২৬ ফেব্রুয়ারি) রাত ৮টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। পরে বিক্ষুব্ধ জনতা আগুন দিয়ে বাসটি পুড়িয়ে দেয়।

নিহতরা হলেন- সদর উপজেলার ছয়ঘড়িপারা গ্রামের মৃত সাবর আলীর ছেলে ভ্যানচালক হালিম উদ্দিন (৪০) ও একই গ্রামের মৃত এমাজউদ্দিন মিস্ত্রির ছেলে যাত্রী কাশেম মিয়া (৩৫)। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন পিকনিকের বাসের যাত্রী নবম শ্রেণির শিক্ষার্থী আশা (১৫)।

প্রত্যক্ষদর্শী ও পুলিশ জানায়, টাঙ্গাইলের ভূঞাপুর যমুনা সেতু পূর্ব পাতাইলকান্দি এলাকার চাইল্ড কেয়ার প্রি-ক্যাডেট স্কুলের শিক্ষার্থী, শিক্ষক ও অভিভাবকসহ ৬৮ জনকে নিয়ে শেরপুরের ঝিনাইগাতী উপজেলার গজনী ও নালিতাবাড়ী উপজেলার মধুটিলা ইকোপার্কে বনভোজনে আসে। পিকনিক শেষে ফেরার পথে সদর উপজেলার কুসুমহাটি এলাকায় ব্যাটারিচালিত একটি ভ্যানকে চাপা দেয় বাসটি। এতে ঘটনাস্থলেই ভ্যানের চালক ও এক যাত্রী নিহত হন। আহত হন ওই বাসের এক শিক্ষার্থী।

বিক্ষুব্ধ জনতা বাসটিতে আগুন ধরিয়ে দেয়। পরে পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিস দীর্ঘসময় চেষ্টার পর আগুন নিয়ন্ত্রণে আনলেও বাসের সব পুড়ে যায়। আগুন দেয়া বাসটির নাম রবিন পরিবহন। যার নম্বর (ঢাকা মেট্রো-ব ১৫-৩০১৫)। এদিকে পুলিশের সহযোগিতায় বাসের সকল যাত্রীকে ঘটনাস্থলের পাশে একটি কলেজে রাখা হয়েছে।

চাইল্ড কেয়ার প্রি-ক্যাডেট স্কুলের পরিচালক এরশাদ আলী বলেন, এ ঘটনায় আমাদের স্কুলের নবম শ্রেণির শিক্ষার্থী আশা আহত হয়েছে। স্থানীয়দের সহযোগিতায় তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

শেরপুরের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর সার্কেল) আমিনুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।