সন্ত্রাসীদের গুলিতে নিহত সেনা সদস্য নাসিমের দাফন সম্পন্ন

গৌরীপুর নিউজ
প্রকাশিত : মঙ্গলবার ২০ আগস্ট, ২০১৯ /

রাঙামাটিতে সন্ত্রাসীদের গুলিতে নিহত সেনা সদস্য নাসিম আহমেদের(১৯) লাশ সোমবার (১৯ আগস্ট) বাদ আছর তার গ্রামের বাড়ি ময়মনসিংহের মুক্তাগাছা উপজেলার তারাটী পূর্বপাড়ায় পারিবারিক গোরস্থানে দাফন করা হয়েছে।

রোববার (১৮ আগস্ট) সকাল ১০টায় রাঙামাটি রিজিয়নের রাজস্থলী আর্মি ক্যাম্প হতে ৪ কিলোমিটার দক্ষিণে পোয়াইতুমুখ নামক স্থানে পাহাড়ী সন্ত্রাসীদের গুলিবর্ষণে নিহত হন টহলরত সেনা সদস্য নাসিম আহমেদ (১৯)।

নাসিম দুই একদিনে মধ্যেই ছুটিতে বাড়ি আসার কথা ছিল। মোবাইল ফোনে গত শনিবার বিকালে কথা হয় বাবা মার সাথে। অতি আদরের ছেলের জন্য মা নাজমা বেগম কোরবানীর মাংস রেখে দেন।

নাড়িছেড়া ধন বাড়ি ফিরলে আদর করে খাওয়াবেন সেই মাংস। কিন্তু বাড়ি ফেরা হলেও সে মাংস আর খাওয়া হলো না। মা বাবার সাথে কথা বলার একদিন পরই রোববার সকালে কর্মস্থলে কর্তব্যরত অবস্থায় সন্ত্রাসীদের গুলিতে প্রাণ হারাতে হয়েছে ঐ সেনা সদস্যের।

সোববার বিকাল পৌনে তিনটার দিকে সেনা সদস্য নাসিম আহামেদের(১৯) লাশ সেনাবাহিনীর গাড়িতে করে পৌছে তার গ্রামের বাড়ি ময়মনসিংহ জেলার মুক্তাগাছা উপজেলার তারাটী পূর্বপাড়া গ্রামে।

এ সময় সেখানে এক হৃদয়বিদারক দৃশ্যের অবতারণা হয়। স্বজনদের আহাজারিতে পরিবেশ ভারি হয়ে উঠে। মা নাজমা বেগম আর বাবা বিল্লাল হোসেন সন্তানের লাশ দেখে বার বার মূর্ছা যাচ্ছিলেন। পুরো এলাকায় শোকের ছায়া নেমে আসে।

মুক্তাগাছার তারাটী পূর্বপাড়া গ্রামের কৃষক বিল্লাল হোসেনের এক মেয়ে দুই ছেলের মধ্যে সবার ছোট নাসিম আহমেদ ২০১৬ সালে মুক্তাগাছা রামকিশোর সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এসএসসি পাস করেন।

পরে ২০১৮ সালে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীতে সৈনিক পদে যোগদান করেন। এরপর গত রোজার ঈদে বাড়িতে ছুটি কাটিয়ে কর্মস্থল রাঙামাটি ক্যাম্পে যোগ দেন।

রোববার সন্ত্রাসীদের গুলিতে নিহত হন। সোমবার বাদ আসর জানাজা নামাজ শেষে পারিবারিক কবরস্থানে তার লাশ দাফন করা হয়।

আপনার মতামত লিখুন :