সরকারি গাড়ি নিয়ে ৮০ কি.মি দূরে গিয়ে শুক্রবার চেম্বার করেন চিকিৎসক

জেলা প্রতিনিধি
প্রকাশিত : শনিবার ৭ নভেম্বর, ২০২০ /

সরকারি গাড়ি ব্যক্তিগত কাজে ব্যবহার করার সময় সাংবাদিক দেখে ফেলায় দৌড়ে পালালেন চিকিৎসক জান্নাতুল ফেরদৌস সাথী।

চিকিৎসক জান্নাতুল ফেরদৌস সাথী ময়মনসিংহের মুক্তাগাছা উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা। শুক্রবার (০৬ নভেম্বর) রাতে শেরপুরের নকলা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের সামনে রোগী দেখার পর বেরিয়ে যাওয়ার সময় এ ঘটনা ঘটে।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, চিকিৎসক জান্নাতুল ফেরদৌস সাথী গত বছরের অক্টোবরে মুক্তাগাছা উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা হিসেবে যোগদান করেন। এর আগে তিনি শেরপুরের নকলা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিকেল কর্মকর্তা হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছিলেন।

চিকিৎসক জান্নাতুল ফেরদৌস সাথী মুক্তাগাছা উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা হিসেবে যোগদান করার সময় সরকারি কাজে ব্যবহারের জন্য একটি গাড়ি দেয়া হয়।

নিয়ম রয়েছে সরকারি কাজ ছাড়া উপজেলার বাইরে গাড়ি নিয়ে যেতে হলে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের অনুমতি ও সংশ্লিষ্ট কারণ থাকতে হবে। চিকিৎসক জান্নাতুল ফেরদৌস সাথী প্রায়ই রোগী দেখতে নকলায় যান।

শেরপুরে নকলা উপজেলা ময়মনসিংহের মুক্তাগাছা থেকে দূরত্ব প্রায় ৮০ কিলোমিটার। এছাড়া অভিযোগ রয়েছে ওই চিকিৎসক সরকারি গাড়ি নিয়ে প্রায়ই তার বাড়ি ও শ্বশুরবাড়িতে যান।

এ বিষয়ে গাড়িচালক মো. জিয়াউল হক বলেন, ম্যাডাম নকলায় আসছেন ব্যক্তিগত কাজে এবং প্রতি শুক্রবারে এখানে চেম্বার করেন। এর আগেও ম্যাডাম আসছেন এখানে রোগী দেখতে। ম্যাডাম আমাকে যেখানে যেতে বলেন আমি যাই। আমি গাড়িচালক। তিনি যেখানে যেতে বলবেন আমাকে সেখানেই যেতে হবে।

এ বিষয়ে মুক্তাগাছা উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা জান্নাতুল ফেরদৌস সাথী বলেন, নকলায় আমার শ্বশুরবাড়ি। ওই খানে গিয়েছিলাম। এর বাইরে কিছু বলতে চাই না।

ময়মনসিংহের সিভিল সার্জন মসিউল আলম বলেন, ঘটনার সত্যতা পেলে অবশ্যই ব্যবস্থা নেয়া হবে। চাইলেই তিনি ব্যক্তিগত কাজে সরকারি গাড়ি ব্যবহার করতে পারবেন না। নিয়মনীতি রয়েছে। ওই চিকিৎসক যে সরকারি গাড়ি নিয়ে নকলায় রোগী দেখতে গেছেন তার প্রমাণ পেলে অবশ্যই ব্যবস্থা নেয়া হবে।

আপনার মতামত লিখুন :