সৌদির সঙ্গে মিল রেখে জামালপুরের ১৩ গ্রামে ঈদ উদযাপন

জেলা প্রতিনিধি
প্রকাশিত : মঙ্গলবার ৪ জুন, ২০১৯ /

জামালপুরের সরিষাবাড়ী উপজেলার ১৩টি গ্রামে পবিত্র ঈদুল ফিতর উদযাপিত হচ্ছে। মঙ্গলবার সকাল ৯টায় ১৩টি গ্রামের ছয় শতাধিক মানুষ সৌদি আরবের সঙ্গে মিল রেখে রোজা শেষে ঈদুল ফিতরের নামাজ আদায় করেন।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, সরিষাবাড়ী পৌরসভার উত্তর বলারদিয়ার গ্রামে আন্তর্জাতিক চাঁদ দেখা কমিটির সিদ্ধান্ত অনুয়ায়ী ২০০৫ সাল থেকে আটটি গ্রামের মুসলমানরা প্রতি বছর সৌদি আরবের সঙ্গে মিলিয়ে এক সঙ্গে ঈদ উদযাপন করেন। এরপর থেকে সৌদির সঙ্গে মিলিয়ে রোজা ও ঈদ পালনে মানুষের সংখ্যা বাড়তে থাকে। এবার উপজেলার ভাটারার পাখাডুবি, পৌরসভার পঞ্চপীর, বলারদিয়ার, মহাদানের খাগুরিয়া, উচ্চগ্রাম, সানাকৈর, সাতপোয়া ইউপির দাসের বাড়ি, উত্তর বলারদিয়ার, পাটাবুগা, পুঠিয়ার পাড়, বগারপাড়, হোসনাবাদ, বালিয়া, লোটাবরসহ ১৩টি গ্রামের মুসলমানরা ঈদুল ফিতরের নামাজে শরিক হন।

মঙ্গলবার সকাল ৯টায় উত্তর বলারদিয়ার এলাকার মাস্টার বাড়ি জামে মসজিদ মাঠে ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হয়। নামাজে ইমামতি করেন আজিম উদ্দিন মাস্টার।

বলারদিয়ার গ্রামের আব্দুল কুদ্দুস জানান, বেশ কয়েক বছর ধরে আমরা আটটি গ্রামের মুসলমানরা এক সঙ্গে ঈদুল ফিতরের নামাজ আদায় করে আসছি। তবে দিন দিন মুসল্লির সংখ্যা বাড়ছে।

ইমাম আজিম উদ্দিন মাস্টার জানান, আন্তর্জাতিক চাঁদ দেখা কমিটির সিদ্ধান্ত অনুয়ায়ী ২০০৫ সাল থেকে আটটি গ্রামের মুসলমানরা আমার পেছনে ঈদুল ফিতরের নামাজ আদায় করে আসছে। এছাড়া সরিষাবাড়ীসহ জেলার বিভিন্ন প্রান্ত থেকে অনেক মুসল্লিরা এখানে ঈদের নামাজ পড়তে আসেন।

আপনার মতামত লিখুন :