হত্যাকাণ্ডের ১ ঘণ্টার মধ্যে পানিতে ঝাঁপিয়ে পড়ে আসামি ধরল পুলিশ

জেলা প্রতিনিধি
প্রকাশিত : মঙ্গলবার ২৫ আগস্ট, ২০২০ /

পটুয়াখালীর বাউফল উপজেলায় তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে ছুরিকাঘাতে শাওন খন্দকার (২৮) নামে এক যুবককে হত্যা করা হয়েছে। এ ঘটনার এক ঘণ্টার মধ্যে হাঁটু পানিতে ঝাঁপিয়ে পড়ে হত্যায় জড়িত রাজিব রাজাকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

সোমবার (২৪ আগস্ট) দুপুর ১২টার দিকে উপজেলার সদর ইউনিয়নের বিলবিলাস গ্রামে এ হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। হত্যাকাণ্ডের এক ঘণ্টার মাথায় খুনিকে গ্রেফতার করে পুলিশ। নিহত শাওন বিলবিলাস গ্রামের জাকির হোসেনের ছেলে।

পটুয়াখালীর পুলিশ সুপার (এসপি) মোহাম্মদ মইনুল হাসান বলেন, শাওন খন্দকার গাজীপুরে চাকরির পাশাপাশি মাস্টার্সে পড়তেন। রাজিব রাজা (২৮) ঢাকায় থাকেন। করোনাভাইরাসের কারণে দুইজনই বাড়িতে চলে আসেন। মাঝেমধ্যে বিলবিলাস বাজারে বসে আড্ডা দিতেন তারা।

সোমবার বিলবিলাস বাজারের আল আমিন সর্দারের হোটেলে রাজিব সিঙাড়া খাচ্ছিলেন। এ সময় শাওন দোকানে গিয়ে বসেন। কথা বলার সময় কোনো একটি বিষয় নিয়ে দুইজনের বাগবিতণ্ডা শুরু হয়। একপর্যায়ে রাজিব টেবিলে থাকা কাচের গ্লাস ভেঙে শাওনের গলায় আঘাত করেন। সেই সঙ্গে নিজের কাছে থাকা ছুরি দিয়ে শাওনের পেটে একাধিক আঘাত করে পালিয়ে যান রাজিব। পরে হাসপাতালে নেয়ার পর শাওনকে মৃত ঘোষণা করেন চিকিৎসক।

পুলিশ সুপার বলেন, খবর পাওয়ার সঙ্গে সঙ্গে বাউফল থানা পুলিশের একটি দল ঘটনাস্থলে যায়। পাশাপাশি রাজিবকে গ্রেফতার করতে বাড়িতে অভিযান চালায় পুলিশ। পুলিশ দেখে বাড়ির পেছনের ধানক্ষেতের ভেতর দিয়ে পালিয়ে যান রাজিব। এ সময় পুলিশ তার পিছু নেয়। পরে বিলের ভেতর লুকিয়ে যান রাজিব। এক ঘণ্টা অভিযান চালিয়ে বিলের পানিতে ঝাঁপিয়ে পড়ে রাজিবকে গ্রেফতার করে পুলিশ। একই সঙ্গে হত্যাকাণ্ডের ঘটনাস্থল থেকে ভাঙা কাচের গ্লাস উদ্ধার করা হয়।

এসপি মোহাম্মদ মইনুল হাসান আরও বলেন, এ ঘটনায় নিহত শাওনের বাবা জাকির হোসেন খন্দকার বাদী হয়ে হত্যা মামলা করেছেন। আদালতের মাধ্যমে রাজিবকে জেলহাজতে পাঠানো হয়েছে।

আপনার মতামত লিখুন :