ময়মনসিংহরবিবার , ১১ ফেব্রুয়ারি ২০২৪

ঈশ্বরগঞ্জে আইনশৃঙ্খলার চরম অবনতি চুরি ছিনতাই বৃদ্ধি

নিজস্ব প্রতিবেদক
ফেব্রুয়ারি ১১, ২০২৪ ১২:২১ পূর্বাহ্ণ
Link Copied!

ময়মনসিংহের ঈশ্বরগঞ্জ উপজেলায় আইনশৃঙ্খলার চরম অবনতি ঘটছে। অপরাধের স্বর্গরাজ্যে পরিণত হচ্ছে ঈশ্বরগঞ্জ। এখানে ক্রমেই বাড়ছে চুরি ছিনতাই ঘটনা। দিন দিন বাড়ছে চুরি ও ছিনতাই সহ নানা অপরাধ।

ঈশ্বরগঞ্জ পৌর এলাকার মাদকসেবীর সংখ্যা আশংখ্যাজনক হারে বৃদ্ধি পাওয়ায় পাট বাজারস্থ পুকুরপাড় এলাকার অর্ধ শতাধিক বাসিন্দা প্রতিকার চেয়ে গত ১৮ নভেম্বর ৫জন মাদক ব্যবস্যায়ীর নাম উল্লেখ করে থানা পুলিশের কাছে লিখিত অভিযোগ দিয়েও পাননি কোন প্রতিকার। প্রশাসনের পক্ষ থেকে কোন সহযোগিতা না পেয়ে স্থানীয় এলাকাবাসী নিজ উদ্যোগে মাদক ব্যবসায়ীদের হুঁশিয়ারি করে মাদকমুক্ত এলাকা ঘোষণা দিয়ে ব্যানার টানিয়েছেন।

এদিকে মাদকের করাল গ্রাসে যুব সমাজ বিপদগামী হয়ে চুরি ছিনতাই ও ইভটিজিংয়ে জড়াচ্ছে।

গত ১১জানুয়ারি টিএন্ডটি রোডের স্কুল শিক্ষিকা জাহানারা বেগমের বাসভবনের তালা ভেঙ্গে নগদ ১লক্ষ ২০হাজার টাকা স্বর্ণালংকার সহ প্রায় ৫লক্ষ টাকা মালামাল চুরি হয়। ১৫ জানুয়ারি দিবাগত রাতে পৌর বাজারের মেসার্স আব্দুর রশিদের দোকান থেকে নগদ ৮০হাজার টাকা চুরি হয়। ২৬ জানুয়ারি একরাতে উপজেলার পৌর বাজারে ৫দোকান, মাইজবাগ ইউনিয়নের হারুয়া বাজারে জসিম টেলিকম ও ডাচ বাংলা এজেন্ট ব্যাংকের টিনের চাল কেটে চুরি হয় ও রাজিবপুর ইউনিয়নের ২টি মুদি দোকানের প্রায় ২লক্ষ টাকার মালামাল চুরি করে নিয়ে যায়।

২৯ জানুয়ারি রাতে উপজেলার চর হোসেনপুর এলাকা থেকে পৌরসভা এলাকার পাইভাকুরি গ্রামের আব্দুল জব্বার পুত্র মোঃ আল আমিন অটো গাড়ি নিয়ে যায়। ৭ ফেব্রুয়ারি দিবাগত রাতে পৌর এলাকার দত্তপাড়া গ্রামের সাংবাদিক হাবিবুর রহমানের বাসার গেইটের তালা কেটে ১২৫ সিসি ডিস্কভার ময়মনসিংহ-হ-১৩-৬৬৮৪ নাম্বারের একটি মোটর সাইকেল চুরি করে নিয়ে যায়।

এর কিছুদিন পূর্বেও এই সাংবাদিকের বাসার টিনের চাল কেটে ঘরের নগদ টাকা সহ প্রায় ৪লক্ষ টাকার মালামাল নিয়ে যায়। একইদিনে দত্তপাড়া এলাকার ভাড়াটিয়া মুর্শেদুল হক রিয়াদের বাসার তালা ভেঙ্গে নগদ টাকা, স্বর্ণালংকার সহ প্রায় ১লক্ষ ৫৫ হাজার টাকার মালামাল চুরি হয়।

৬ ফেব্রুয়ারি দিবাগত রাতে মাইজবাগ ইউনিয়নের তেরছাটি গ্রামের মৃত আব্দুস সাত্তার চকদারের পুত্র খোকন চকদারের দোকান থেকে নগদ টাকা, ফ্রিজ, টিভিসহ যাবতীয় মালামাল চুরি করে নিয়ে যায়। এর কিছুদিন পূর্বে ৩১ ডিসেম্বর রাতে তার এক লক্ষ ২০হাজার টাকা দামের একটি গরু নিয়ে যায়। ৪ ফেব্রুয়ারি ঈশ্বরগঞ্জ ইউনিয়নের নজরুল টেইলার্সের পাশে থেকে জয়পুর গ্রামের মৃত ওয়াজেদ গনি পুত্র মোহাম্মদ রফিকুল ইসলামের মোটর সাইকেল চুরি করে নিয়ে যায়।

এবিষয়ে ঈশ্বরগঞ্জ থানা ওসি মুহাম্মদ মাজেদুর রহমান জানান, সাংবাদিকের বাসায় চুরির ঘটনাটি দুঃখজনক। এ চুরির ঘটনার সাথে বাহিরের চোর চক্রের সম্পৃক্ততা থাকতে পারে। আমরা এসব চক্রদের খোঁজে বের করার চেষ্টা করছি।

এবিষয়ে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার গৌরীপুর সার্কেল মোঃ সুমন মিয়া জানান, চুরির ব্যাপারে থানায় লিখিত অভিযোগ পেলে আইনানুগব্যবস্থা নেয়া হবে।

এবিষয়ে ঈশ্বরগঞ্জ পৌর মেয়র বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুস সাত্তার জানান, পৌর শহরের আইনশৃঙ্খলা দিনদিন চরম অবনতির দিকে যাচ্ছে। চুরির দায় স্বীকার করার পরও পুলিশ চুরির মালামাল উদ্ধার করতে পারছে না। কয়েকদিন পরপর চুরি সংগঠিত হচ্ছে। প্রশাসনের নাকের ডগায় অব্যহত ভাবে চুরি সংগঠিত হওয়ায় এলাকাবাসির মাঝে চরম আতঙ্ক বিরাজ করছে। চুরির ব্যপারে প্রশাসনের কার্যকর পদক্ষেপ নেয়া অতীব জরুরি।

এবিষয়ে ময়মনসিংহ-৮ ঈশ্বরগঞ্জ আসনের জাতীয় সংসদ সদস্য মাহমুদ হাসান সুমন জানান, উপজেলায় সাম্প্রতিক কালীনসময়ে চুরি ছিনতাই বৃদ্ধির ঘটনাটি অনাকাঙ্ক্ষিত। এব্যাপারে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীসহ প্রশাসনের কঠোর পদক্ষেপ গ্রহণের মাধ্যমে আইনশৃঙ্খলার পরিস্থিতির উন্নতি ঘটাতে হবে।

 

জিএন/রুমি/এইচ

    ইমেইলঃ news.gouripurnews@gmail.com