ব্লেড দিয়ে গৃহকর্মীকে নির্যাতন, তিন জনের নামে মামলা

নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত : রবিবার ১২ সেপ্টেম্বর, ২০২১ /

ময়মনসিংহের ফুলবাড়িয়ায় ব্লেডে খুঁচিয়ে ১১ বছরের এক শিশু গৃহকর্মীকে নির্যাতনের অভিযোগে গৃহকর্ত্রীসহ তিনজনের নামে মামলা হয়েছে। ভুক্তভোগী শিশুর বাবা বাদী হয়ে কোতোয়ালি মডেল থানায় এ মামলা করেন।

মামলার অভিযুক্তরা হলেন উপজেলার কুশমাইল ইউনিয়নের পানেরভিটা গ্রামের মৃত ওয়াজেদ আলীর মেয়ে আসমা আক্তার (৩৫), তার বোন নিটু আক্তার (৪০) ও ভাই সোহাগ মিয়া (৪৬)।

শনিবার (১১ সেপ্টেম্বর) মামলার বিষয়টি সাংবাদিকদের নিশ্চিত করেন কোতোয়ালি মডেল থানার পরিদর্শক (তদন্ত) ফারুক হোসেন।

মামলা সূত্রে জানা যায়, মাসিক এক হাজার টাকায় তিন মাস আগে আসমা আক্তারের বাসায় গৃহকর্মীর কাজে দেওয়া হয় শিশুটিকে। এরপর থেকে বিভিন্ন অজুহাতে তাকে অমানবিক নির্যাতন করতেন আসমা, বোন নিটু ও ভাই সোহাগ।

বৃহস্পতিবার (৯ সেপ্টেম্বর) নির্যাতনের সময় সে অজ্ঞান হয়ে পড়লে আসমা অন্য একজনের সহায়তায় বিকেল ৫টার দিকে ওই শিশুকে তাদের বাড়ির পাশে ফেলে রেখে চলে যান। পরে বাড়ির আশপাশের লোকজন ওই শিশুকে অজ্ঞান অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখে শিশুটির পরিবারের লোকজনকে বিষয়টি জানায়। তাকে উদ্ধার করে প্রথমে ফুলবাড়িয়া থানায় নিয়ে যাওয়া হয়। পরে পুলিশের সহায়তায় ফুলবাড়িয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়।

ভুক্তভোগী শিশুর বাবা বলেন, মেয়ের পুরো শরীরে ব্লেডের আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। এছাড়া গোপনাঙ্গেও ব্লেডের আঘাতের চিহ্ন আছে। আমি এর কঠিন বিচার চাই।

কোতোয়ালি মডেল থানার পরিদর্শক (তদন্ত) বলেন, নির্যাতনের শিকার শিশু গৃহকর্মী এখনো ফুলবাড়িয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন। শুক্রবার রাতে তার বাবা থানায় মামলা করেন। অভিযুক্তরা পালিয়েছেন। তাদের গ্রেফতারে অভিযান চলছে।

আপনার মতামত লিখুন :